| |

Ad

২০২১ সালে দেশে চীনের বিনিয়োগ হবে ১০ বিলিয়ন: বাণিজ্যমন্ত্রী

আপডেটঃ ৭:১২ অপরাহ্ণ | ডিসেম্বর ৩১, ২০১৯

চীন বাংলাদেশের উন্নয়নে সবচেয়ে বড় অংশীদার বলে জানিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি। তিনি বলেন, বাংলাদেশের বড় বড় উন্নয়ন প্রকল্পগুলোতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে চীন। বাংলাদেশে একক বড় বিনিয়োগকারী এবং এক নম্বর উন্নয়নের অংশীদার দেশটি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষিত ১০০টি স্পেশাল ইকোনমিক জোন ও রফতানি প্রক্রিয়াকরণ এলাকায় বিপুল বিনিয়োগের সুযোগ রয়েছে। ২০২১ সালে দেশে চীনের বিনিয়োগ হবে ১০ বিলিয়ন ডলার।


সোমবার (৩০ ডিসেম্বর) ঢাকার একটি হোটেলে চায়না এন্টারপ্রাইজ অ্যাসোসিয়েশন ইন বাংলাদেশ আয়োজিত অ্যাসোসিয়েশনের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন তিনি।


অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশে নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত ঝ্যাং জুয়ো, এফবিসিসিআই (বাংলাদেশ শিল্প ও বণিক সমিতি ফেডারেশন) প্রেসিডেন্ট শেখ ফজলে ফাহীম, বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নির্বাহী চেয়ারম্যান পবন চৌধুরী, বাংলাদেশ এক্সপোর্ট প্রসেসিং জোনের নির্বাহী চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল সালাহ উদ্দিন, চায়না এন্টারপ্রাইজ অ্যাসোসিয়েশন ইন বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট লিন উয়েকিং।


বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, চায়না এন্টারপ্রাইজ অ্যাসোসিয়েশন ইন বাংলাদেশ এ ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে। স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়তে চীন বাংলাদেশের পাশে থাকবে বলে বাংলাদেশ আশা করে। সব দিক বিবেচনা করে বাংলাদেশে চীন বড় ধরনের বিনিয়োগের সিদ্ধান্ত নিতে পারে।


বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ তৈরি পোশাক শিল্পে দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশের তৈরি পোশাক চীনের বাজারে রফতানি বাড়ছে।

চীন সরকার তৈরি পোশাক রফতানি খাতে বাংলাদেশের জন্য সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি করলে রফতানি বাড়বে। রফতানি বাণিজ্যে বাংলাদেশের সক্ষমতা অনেক বেড়েছে।