| |

Ad

আর সুপার ওভার চায় না নিউজিল্যান্ড

আপডেটঃ ৬:১২ অপরাহ্ণ | জানুয়ারি ৩০, ২০২০

সুপার ওভারের সঙ্গে নিউজিল্যান্ডের বন্ধুত্ব আর হল না। দুটো বিশাল ছক্কায় রোহিত শর্মা ম্যাচ ছিনিয়ে নেওয়ার পরে কিউই অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনের স্বীকারোক্তি, ‘সুপার ওভারে আগেও আমরা হেরে গিয়েছি। সিরিজের তৃতীয় টি-টোয়েন্টি ম্যাচেও আমরা সুপার ওভারেই হেরে বসলাম। সুপার ওভারের সঙ্গে আমাদের বন্ধুত্ব আর হল না। এবার থেকে আমাদের যা করার তা নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই করতে হবে।’

কিউইরা মাঠে নেমে নিজেদের নিংড়ে দেবে, শত্রুর চোখে চোখ রেখে লড়বে কিন্তু খেলা সুপার ওভারে গড়ালেই অবধারিত ভাবে উইলিয়ামসনরা ম্যাচ হারবে। পরিসংখ্যান বলছে, সাতটি সুপার ওভারে নেমে নিউজিল্যান্ড ছ’টিতেই হেরেছে। একবারই জিতেছে তারা।

জুলাই ২০১৯: বিশ্বকাপ ফাইনালে ইংল্যান্ডের কাছে কিউইরা হেরেছিল সুপার ওভারে।

নির্ধারিত ৫০ ওভারে নিউজিল্যান্ড করেছিল আট উইকেটে ২৪১ রান। রান তাড়া করতে নেমে ইংল্যান্ডের ইনিংস শেষ হয়ে যায় ২৪১ রানে। ম্যাচ গড়ায় সুপার ওভারে। সেখানেও ম্যাচ টাই হয়। বেশি সংখ্যক বাউন্ডারি মারার জন্য ইংল্যান্ড বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হয়ে যায়।

ডিসেম্বর ২০০৮: অকল্যান্ডে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে সুপার ওভারে হার মানে নিউজিল্যান্ড।

২০ ওভারে নিউজিল্যান্ড তোলে সাত উইকেটে ১৫৫ রান। সমসংখ্যক ওভার থেকে ওয়েস্ট ইন্ডিজ করে আট উইকেটে ১৫৫। সুপার ওভারে ক্যারিবিয়ানরা করে এক উইকেটে ২৫। নিউজিল্যান্ড ২ উইকেটে ১৫ রান করায় ম্যাচ হেরে যায়।

ফেব্রুয়ারি ২০০৮: অস্ট্রেলিয়াকে সুপার ওভারে হারায় নিউজিল্যান্ড।

২০ ওভারে নিউজিল্যান্ড করেছিল ছয় উইকেটে ২১৪ রান। অস্ট্রেলিয়া করে চার উইকেটে ২১৪। সুপার ওভারে কিউইরা তোলে বিনা উইকেটে ৯ রান। অস্ট্রেলিয়া এক উইকেটে ৬ রান করায় ম্যাচ হেরে যায়।

সেপ্টেম্বর ২০১২: টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কার কাছে সুপার ওভারে হারে নিউজিল্যান্ড।

২০ ওভারে কিউইরা করে সাত উইকেটে ১৭৪ রান। শ্রীলঙ্কা করে ছ’উইকেটে করে ১৭৪। সুপার ওভারে শ্রীলঙ্কা এক উইকেটে ১৩ রান তোলে। নিউজিল্যান্ড এক উইকেটে ৭ রান করে ম্যাচ হারে।

অক্টোবর ২০১২: টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে হারে কিউইরা।

১৯.৩ ওভারে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১৩৯ রানে অলআউট হয়ে যায়। নিউজিল্যান্ড ২০ ওভারে করে সাত উইকেটে ১৩৯। সুপার ওভারে ক্যারিবিয়ানরা করে বিনা উইকেটে ১৯ রান। কিউইরা বিনা উইকেটে ১৭ রান করে ম্যাচ হারে।

নভেম্বর ২০১৯: অকল্যান্ডে ইংল্যান্ডের কাছে হার মানে নিউজিল্যান্ড।

বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে ১১ ওভারে কিউইরা করেছিল পাঁচ উইকেটে ১৪৬ রান। ইংল্যান্ড করে সাত উইকেটে ১৪৬। সুপার ওভারে ইংল্যান্ড তোলে বিনা উইকেটে ১৭ রান। নিউজিল্যান্ড এক উইকেটে আট রান করে ম্যাচ হারে।

জানুয়ারি ২০২০: হ্যামিলটনে ভারতের কাছে সুপার ওভারে হারে নিউজিল্যান্ড।

ভারত ২০ ওভারে তুলেছিল পাঁচ উইকেটে ১৭৯ রান। কিউইরা ছ’উইকেটে ১৭৯ রান করায় ম্যাচ গড়ায় সুপার ওভারে। নিউজিল্যান্ড বিনা উইকেটে ১৭ রান করে। ভারত বিনা উইকেটে ২০ রান করে ম্যাচ জিতে নেয়।