| |

Ad

দারুণ এক রেকর্ড

আপডেটঃ ১০:১১ অপরাহ্ণ | জানুয়ারি ২৯, ২০১৯

খেলাধুলা সংবাদ : শুধুমাত্র ফ্রাঞ্জাইজি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট খেলার জন্যই দক্ষিণ আফ্রিকার মত দেশের হয়ে খেলা থেকে অবসর নিয়ে নিয়েছিলেন। রিলে রুশো দেখিয়ে দিচ্ছেন, সিদ্ধান্তটা তিনি এমনি এমনি নেননি। নিজেকে টি-টোয়েন্টির অন্য উচ্চতায় নিয়ে গেলেন সাবেক এই প্রোটিয়া ব্যাটসম্যান। যার প্রমান চলতি বিপিএলের প্রতিটি ম্যাচে দিয়ে যাচ্ছেন তিনি।

রিলে রুশো রংপুর রাইডার্সের হয়ে খেলছেন এবারের বিপিএলে। রংপুরের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজার তুরুপের তাস বলা যায় রুশোকে। রাজশাহী কিংসের বিপক্ষে আজকের ম্যাচসহ টানা ১১টি ম্যাচে খেলে ফেলেছেন তিনি রংপুরের হয়ে। আগের ১০ ম্যাচের রানের সংখ্যা দেখলে যে কারো চোখ কপালে উঠে যাবে।

একটি সেঞ্চুরি এবং চারটি হাফ সেঞ্চুরি এসেছে তার ব্যাট থেকে। একটি ম্যাচে কেবল শূন্য এবং অন্য আরেকটি ম্যাচে করেছেন ৭ রান। বাকি ম্যাচগুলোর প্রায় প্রতিটিতেই রিলে রুশোর ব্যাট গর্জে উঠেছে প্রতিপক্ষের বোলারদের বিপক্ষে।

তারই ধারাবাকিহতায় আজ রাজশাহী কিংসের বিপক্ষে ব্যাট করতে নেমে দারুণ এক রেকর্ড গড়ে ফেলেছেন রিলে রুশো। বিপিএলের এক আসরে এতদিন সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ছিলেন পাকিস্তানের আহমেদ শেহজাদ। ২০১১-১২ মৌসুমে (বিপিএলের প্রথম আসরে) পাকিস্তানের এই ওপেনার বরিশাল বার্নার্সের হয়ে ১২ ম্যাচ খেলে করেছিলেন ৪৮৬ রান।

এতদিন পর্যন্ত এটাই ছিল বিপিএলের এক আসরে সর্বোচ্চ রান সংগ্রহের রেকর্ড। বিপিএলের আগের মৌসুমে ক্রিস গেইল শেহজাদের কাছাকাছি চলে গিয়েছিলেন। কিন্তু মাত্র ১ রানের জন্য তাকে স্পর্শ করতে পারেননি গেইল।

কিন্তু এবার শেহজাদের সেই কীর্তি পেছনে ফেলে রেকর্ড গড়াই নয় শুধু, রংপুর রাইডার্সের দক্ষিণ আফ্রিকান ব্যাটসম্যান রিলে রুশো যা করে যাচ্ছেন, তাতে তিনি কোথায় গিয়ে যে থামবেন, সেটাই বলা মুস্কিল হয়ে পড়েছে।

রাজশাহী কিংসের বিপক্ষে আজ এই আসরে ৫ম হাফ সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন রুশো। হাফ সেঞ্চুরি করার পথে আহমেদ শেহজাদকে ছাড়িয়ে গেলেন তিনি। শুধু তাই নয়, বিপিএলের এক আসরে প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে ৫০০ রানের গণ্ডিও পার হয়ে গেলেন তিনি। অথচ গ্রুপ পর্বের এখনও ১ ম্যাচ বাকি এবং এরপর কোয়ালিফায়ার এবং ফাইনাল বাকি রয়েছে।

এ রিপোর্ট লেখার সময়ই ৫৫ রানে কামরুল ইসলাম রাব্বির বলে বোল্ড হয়েছেন রুশো। সে পর্যন্ত চলতি আসরে তার স্কোর দাঁড়িয়েছে ৫১৩ রান। ১টি সেঞ্চুরির সঙ্গে ৫টি হাফ সেঞ্চুরি তার। স্ট্রাইক রেট ১৫১.৭৭ করে। ছক্কা মেরেছেন মোট ২২টি এবং বাউন্ডারি মেরেছেন ৪৫টি।