| |

Ad

নেত্রকোনায় ২৩তম বসন্তকালীন সাহিত্য উৎসব

আপডেটঃ ৬:৩৩ অপরাহ্ণ | ফেব্রুয়ারি ০৪, ২০১৯

আব্দুর রহমান, নেত্রকোনা প্রতিনিধি ঃ প্রতি বছরের ন্যায় আগামী ১৩ ফেব্রুয়ারি পহেলা ফাল্গুন নেত্রকোনায় অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ২৩তম বসন্তকালীন সাহিত্য উৎসব ও খালেকদাদ চৌধুরী সাহিত্য পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠান।
এবার এই পুরস্কার পাচ্ছেন শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য বিশিষ্ট প্রাবন্ধিক অধ্যাপক ড. রফিক উল্লাহ খান এবং খ্যাতিমান কবি মারুফুল ইসলাম।
নেত্রকোনা সাহিত্য সমাজের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল্লাহ এমরান সাংবাদিকদের জানান, নতুন প্রজন্মের শিক্ষার্থীদেরকে মাদক সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ থেকে দূরে রাখা, সাহিত্য চর্চায় অনুপ্রানিত করা এবং সাহিত্য প্রেমী হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্যে নেত্রকোনা সাহিত্য সমাজ ১৯৯৭ সাল থেকে প্রতিবছর পহেলা ফাল্গুন নেত্রকোনা জেলা শহরের মোক্তারপাড়াস্থ পাবলিক লাইব্রেরীর বকুল তলা চত্বরে বসন্তকালীন সাহিত্য উৎসব পালন করে আসছে। উৎসবে বাংলা সাহিত্যে বিশেষ অবদান রাখায় প্রতি বছর একজন দেশ বরেণ্য লেখক, কবি, সাহিত্যিককে এ পুরস্কার প্রদান করা হয়।
নেত্রকোনা সাহিত্য সমাজের সভাপতি কবি কামরুজ্জামান চৌধুরী বলেন, বাংলা সাহিত্যে বিশেষ অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ এ বছর শেখ হাসিনা বিশ^বিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রাবন্ধিক অধ্যাপক ড. রফিক উল্লাহ খান ও কবি মারুফুল ইসলামকে খালেকদাদ চৌধুরী সাহিত্য পুরস্কার প্রদান করা হবে।
পহেলা ফাল্গুন সকাল ১০টায় বকুলতলা চত্বরে জাতীয় সঙ্গীত ও জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে উৎসবের আনষ্ঠিানিক উদ্বোধন করা হবে। গৃহীত কর্মসূচীর মধ্যে রয়েছে ভাষা শহীদসহ সকল শহীদদের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা, বসন্ত বন্দনা, আনন্দ শোভাযাত্রা, শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, বাঁশির সুর, তবলার লহরি, স্বরচিত কবিতা ও ছড়া পাঠ, গল্প পাঠ, সাহিত্য আড্ডা, নতুন প্রকাশিত বইয়ের পাঠ উন্মোচন, আলোচনা সভা, খালকদাদ চৌধুরী সাহিত্য পুরস্কার প্রদান, মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। নেত্রকোনা ও বৃহত্তর ময়মনসিংহ ছাড়াও দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের কবি সাহিত্যকরা এই উৎসবে যোগদান করেন।