| |

Ad

ব্রণের কারণে মুখে গর্ত

ফেব্রুয়ারি ১২, ২০১৯

লাইফস্টাইল সংবাদ : ব্রণ এমনই এক সমস্যা যেটি ওঠা থেকে শুরু করে শেষপর্যন্ত মুখের সৌন্দর্য কমিয়ে দেয়ার জন্য দায়ী। এটি দূর হলেও অনেকসময়ই চিহ্ন রেখে যায়। বিশেষ করে কিছু নাছোড়বান্দা ব্রণের কারণে শেষপর্যন্ত মুখে গর্ত হয়। তখন আর কিছুতেই এটি ভরাট করা সম্ভব হয় লাইফস্টাইল না। তবে এমন হলেও মন খারাপের কিছু নেই। বাড়িতেই কিছু প্যাক তৈরি করে ব্যবহার করলে সহজেই মুক্তি মিলবে এই সমস্যা থেকে- ১. যা লাগবে : ভিটামিন-ই ক্যাপসুল একটি, অ্যালোভেরা জেল পরিমাণ মতো, পাতি লেবুর রস কয়েক ফোটা। যেভাবে ব্যবহার করবেন : ভিটামিন-ই ক্যাপসুল, অ্যালোভেরা জেল এবং পাতিলেবুর রস, একত্রে মিশিয়ে প্রথমেই একটি মিশ্রণ তৈরি করে ফেলুন। এরপর কোনো অয়েল ফ্রি বা নিম ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ পরিষ্কার করে নিন। এবারে মিশ্রণটিকে হাতের আঙুলের সাহায্যে পুরো মুখে, বিশেষ করে গর্ত গুলির ওপর লাগিয়ে ৩০ মিনিট অপেক্ষা...

সুন্দরী হতে চাইলে কি করবেন

ফেব্রুয়ারি ০৩, ২০১৯

লাইফস্টাইল সংবাদ : : সবাই চায় নিজেকে দেখতে সুন্দর লাগুক। সেজন্য ত্বকের সুস্থতা নিশ্চিত করা জরুরি। ফর্সা ও উজ্জ্বল ত্বক পেতে চাইলে খাবারের ক্ষেত্রে মেনে চলতে হবে কিছু নিয়ম। নিয়মিত কিছু ফলের রস খেলে আপনার চেহারায় জেল্লা আসতে বাধ্য। কোন ফলগুলো? চলুন দেখে নেয়া যাক- আপেলে রয়েছে প্রচুর মাত্রায় অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং আরও নানাবিধ উপকারি উপাদান, যা ত্বকের স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটাতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। সেই সঙ্গে শরীরকে চাঙ্গা রাখতেও সাহায্য করে। গাজরে উপস্থিত বিটা-ক্যারোটিন এক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। তাই যদি তাপ প্রবাহের হাত থেকে ত্বককে বাঁচাতে চান, তাহলে প্রতিদিন গাজর এবং কমলা লেবু দিয়ে বানানো জুস পান করুন। কমলায় আছে সাইট্রিক অ্যাসিড। যা ত্বকে কোলাজেনের উৎপাদন বাড়িয়ে দেয়। ফলে ত্বক ফর্সা হয়ে উঠতে সময় লাগে না। সেই সঙ্গে নানাবিধ...

জেনে নিন ভুলে যাওয়ার রোগের সমাধান?

জানুয়ারি ২৯, ২০১৯

লাইফস্টাইল সংবাদ : আমাদের জীবনযাত্রা আধুনিক হওয়ার পাশাপাশি পাল্লা দিয়ে বাড়ছে স্ট্রেসের পরিমাণ, তাই অল্প বয়সেই মনের জরাগ্রস্ত হয়ে পড়ার আশঙ্কাও রয়ে যাচ্ছে। তবে ভালো দিকটা হচ্ছে, এই ধরনের সমস্যা অনেকটাই ঠেকিয়ে রাখা সম্ভব সামান্য সচেতন হলেই। আর যেকোনো বয়সে বা শারীরিক অবস্থাতেই মনকে কর্মক্ষম রাখা ও স্মৃতিশক্তি বাড়িয়ে তোলার কাজটা চেষ্টা শুরু করা সম্ভব। সাম্প্রতিক কিছু গবেষণা কিন্তু দাবি করছে যে নিয়মিত যদি মাথা খাটানো যায়, তা হলে ঠেকিয়ে রাখা সম্ভব আলঝেইমার্স বা ডিমেনশিয়ার মতো কিছু রোগ। জেনে নিন কাজগুলো কী- যদি আপনার বা আপনার বয়স্ক অভিভাবকদের কারো ভুলে যাওয়ার সমস্যা থাকে, তা হলে প্রতিদিন নিজেদের মধ্যেই একটা খেলা খেলতে পারেন। প্রিয় গান বা সুরের একটা তালিকা তৈরি করুন, তার পর সেটা বাজিয়ে মনে করার চেষ্টা করুন সেই গান বা সুরের সঙ্গে আপনার কোন স্মৃতি জড়িয়ে...

দূর করুন টনসিলের ব্যথা

জানুয়ারি ২৭, ২০১৯

লাইফস্টাইল সংবাদ : আমাদের জিভের পেছনের প্রান্তে গলার দুইপাশে যে গোলাকার পিণ্ডটি দেখা যায়, তাই টনসিল। মুখ, নাক, গলা দিয়ে রোগজীবাণু যাতে কোনোভাবে শরীরে ঢুকতে না পারে, সেদিকে খেয়াল রাখে টনসিল। কিন্তু ঠান্ডা লাগলে টনসিলে সংক্রমণ হয়ে থাকে। এমন হলে ঢোক গিলতে ও কথা বলতেও অসুবিধা হয়, গলায় ব্যথার কারণে কাশি দিতেও কষ্ট হয়। টনসিলের ব্যথা কমাতে বাজারচলতি নানা ওষুধ রয়েছে। কিন্তু ওষুধ ছাড়াও ঘরোয়া কিছু উপায়ে দূর করা যায় টনসিলের ব্যথা- লবণপানি: একগ্লাস গরম পানিতে একটু লবণ ফেলে তা দিয়ে ভাপ নিলে সহজেই দূর হয় টনসিলের ব্যথা। ভাপ নেওয়ার সময় কান-মাথা জড়িয়ে বসুন। ফ্যানের বাতাস থেকে দূরে থাকুন। লেবু-মধু: একগ্লাস হালকা গরম পানিতে আস্ত একটি পাতিলেবুর রস, ১ চামচ মধু ও একটু লবণ মিশিয়ে খান। টনসিলে ব্যথা হলে দিনের মধ্যে মাঝে মাঝেই এই পানীয় খান। গ্রিন টি ও মধু: আধ চামচ গ্রিন টিও...

কখন ফল খাওয়া ক্ষতিকর

জানুয়ারি ২৩, ২০১৯

লাইফস্টাইল সংবাদ : খাওয়ার আগে ফল খাওয়া উচিৎ নাকি পরে? এমন দ্বিধায় থাকেন অনেকেই। বেশিরভাগ চিকিৎসকই পরামর্শ দেন খালি পেটে ফল না খাওয়ার। এদিকে আবার ভরা পেটে ফল খেলেও হজমের নানা সমস্যা দেখা দিতে পারে। কারণ, ফলে থাকা ফাইবার পরিপাক ক্রিয়ায় বাধা সৃষ্টি করতে পারে। কমিয়ে দিতে পারে হজম শক্তি। দীর্ঘদিন এমন চলতে থাকলে এর জন্য পেটের নানা গোলমাল হতে পারে। বিশেষজ্ঞদের মতে, ভরা পেটে ফল খেলে তা সহজে হজম হতে চায় না। ফলে দীর্ঘ ক্ষণ পেট ভার বা পেটে একটা অস্বস্তি কাজ করে। যা খাবারের প্রতি অনিহা তৈরি করতে পারে। খাবারের অনিয়মের ফলে দেখা দিতে পারে নানা স্বাস্থ্য সমস্যা। ডায়েটেশিয়ানদের পরামর্শ অনুযায়ী, লাঞ্চ বা ডিনারে খাবারের পরিমাণ কমিয়ে তার পরিবর্তে ফল খেতে পারলে দ্রুত ওজন ঝরানো সম্ভব। কিন্তু ভরা পেটে ফল খেলে যদি তা স্বাস্থ্যের ক্ষতিই হবে, তাহলে ডায়েটেশিয়ানরা এমন পরামর্শ...

দাঁড়িয়ে পানি পানের ক্ষতিকর দিক

জানুয়ারি ২২, ২০১৯

লাইফস্টাইল সংবাদ : পানি কেবল তৃষ্ণাই মেটায় না, শরীরে পানির ভারসাম্যও ঠিক রাখে। শরীরের প্রয়োজন অনুযায়ী কতটা পানি কোন কোন কাজে ব্যবহৃত হবে তার মাত্রাও ঠিক হয়। চিকিৎসকদের মতে, দাঁড়িয়ে পানি পান করার চেয়ে বসে পানি পান করা অনেক বেশি স্বাস্থ্যসম্মত। শরীরের পেশি, হাড়, অঙ্গপ্রত্যঙ্গের অবস্থান, সবকিছুর সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখেই পান করতে হবে পানি। রক্তচাপ, স্নায়বিক ক্রিয়াকলাপ, কিডনির কার্যকারিতা ইত্যাদি নানা দিক খতিয়ে দেখে, বসে পানি পানেরই পরামর্শ দিচ্ছেন চিকিৎসকেরা। আরও পড়ুন: গরম পানিতে গোসল করা ভালো না খারাপ? দাঁড়িয়ে পানি পানের ক্ষতিকর দিক: স্নায়বিক উত্তেজনার দিক খতিয়ে দেখলে বসে পানি পান করাই ভালো। চিকিৎসকদের মতে, দাঁড়িয়ে পানি পান করলে স্নায়ু উত্তেজিত হয় ও বাড়ে রক্তচাপ। বেশিরভাগ সময়ে দাঁড়িয়ে পানি পান করলে কিডনির কার্যক্ষমতা কমে যায়। শরীরের ভিতরের ছাঁকনিগুলি...

কেন আপেল ফ্রিজে রাখবেন

জানুয়ারি ২১, ২০১৯

লাইফস্টাইল সংবাদ : প্রবাদ আছে, ‘অ্যান অ্যাপল আ ডে কিপস দ্য ডক্টর অ্যাওয়ে’। অর্থাৎ প্রতিদিন একটি করে আপেল খেলে আপনার আর চিকিৎসকের শরণাপন্ন হওয়ার প্রয়োজন পড়বে না। এ কারণে হয়তো আপনি ডাইনিং টেবিলে একটি ঝুড়িতে আপেল রাখেন, কারণ চোখের সামনে থাকায় খেতে মনে থাকবে। কিন্তু আপেল কক্ষ তাপমাত্রায় না রেখে ফ্রিজে রাখার সুবিধা বেশি। ডেইলি মেইলের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কক্ষ তাপমাত্রায় আপেল প্রায় এক সপ্তাহ ভালো থাকে। কিন্তু ফ্রিজে রাখলে এক থেকে দুই মাস পর্যন্ত তাজা থাকে আপেল। কক্ষ তাপমাত্রায় আপেল দ্রুত পচনশীল হওয়ায়, তা অপচয় হয়। ফ্রিজের যে অংশে আপেল রাখবেন আপেল দীর্ঘদিন ভালো রাখতে ফ্রিজার (ডিপ ফ্রিজ) অংশে না রেখে ফ্রিজের সাধারণ অংশে রাখুন। ফুড অ্যান্ড ওয়াইনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ফ্রিজে আপেল স্বাভাবিক তাপমাত্রায় অর্থাৎ ৩১ থেকে ৩৫ ডিগ্রি...

গর্ভাবস্থায় যেসব খাবার খাবেন না

জানুয়ারি ১৫, ২০১৯

লাইফস্টাইল সংবাদ : গর্ভাবস্থায় খাবার নিয়ে অন্যান্য সময়ের থেকেও অনেক বেশি সচেতন হতে হয়। কারণ মায়ের খাবার থেকেই গর্ভের শিশু পুষ্টি পায়। হাভার্ড স্কুল অব পাবলিক হেলথ গর্ভবতী নারীদের জন্য হার্ভার্ড হেলথি ইটিং প্লেট নামে নির্দেশিকা প্রকাশ করেছে। যেখানে লাল মাংস সীমিত পরিমাণে এবং প্রসেসড মিট এড়িয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেয়া হয়। এছাড়াও রিফাইন্ড শস্য দিয়ে তৈরি সাদা পাউরুটি ও সাদা চালের ভাত এড়িয়ে যাওয়ার কথা বলা হয়েছে। এতে চিনিযুক্ত পানীয় এড়িয়ে যেতে বলা হয়েছে এবং নিয়মিত ব্যায়াম করার পরামর্শ দেয়া হয়েছে। এর পাশাপাশি আরো কিছু খাবার রয়েছে যা গর্ভাবস্থায় এড়িয়ে চলতে হবে। চলুন জেনে নেই- আরও পড়ুন: যেসব খাবার আপনার বয়স কমিয়ে দেবে! কলিজা ও কলিজার তৈরি খাবার: লিভারে রেটিনল থাকে যা একটি প্রাণীজ ভিটামিন এ। এর অতিরিক্ততা গর্ভের শিশুর জন্য ক্ষতিকর হতে পারে। Pregnant-2 কাঁচা ডিম:...