| |

Ad

নানা ক্লিন চিট পাননি: তনুশ্রী

আপডেটঃ ২:০৯ অপরাহ্ণ | মে ১৯, ২০১৯

গত বছর বলিউডের প্রভাবশালী অভিনেতা নানা পাটেকরের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্তার অভিযোগ এনেছিলেন ‘আশিক বানায়া আপনে’ খ্যাত সাবেক অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্ত। জানিয়েছিলেন, ২০০৮ সালে ‘হর্ন ওকে প্লিজেস’ ছবির শুটিং সেটে নানা তাকে শ্লীলতাহানি করেছিলেন। এই অভিযোগে মুম্বাইয়ের ওশিওয়াড়া থানায় অভিনেতা নানার বিরুদ্ধে তিনি মামলাও করেন। এর জেরে গত বছরই ‘হাউজফুল ফোর’ ছবি থেকে বাদ পড়েন নানা।

তবে সম্প্রতি গুঞ্জন উঠেছে, যৌন হেনস্তার সেই মামলায় ওশিওয়াড়া পুলিশ স্টেশনের তরফ থেকে অভিনেতা নানাকে নাকি ক্লিন চিট দেয়া হয়েছে। কিন্তু এই খবরকে মিথ্যা ও গুজব বলে উড়িয়ে দিয়েছেন অভিনেত্রী তনুশ্রী দত্ত। নায়িকা বলেন, ‘সোশ্যাল মিডিয়াসহ অন্যান্য মাধ্যমে এই গুজব ছড়ানো হচ্ছে। বলা হচ্ছে, ওশিওয়াড়া পুলিশ স্টেশন নাকি নানাকে ক্লিন চিট দিয়েছে।’

নিজের আইনজীবীর বরাত দিয়ে তনুশ্রী বলেন, ‘ক্লিন চিট মুখে মুখে দেয়া যায় না। ম্যাজিস্ট্রেটের লিখিত সম্মতি ছাড়া এটা কোনো অভিযুক্তকেই দেয়ার নিয়ম নেই। নানাও ক্লিন চিট পাননি। শুধু নানা কেন, যৌন হেনস্তার অভিযোগে অভিযুক্ত কোনো ব্যক্তিই ক্লিন চিট পাননি। ইন্ডাস্ট্রিতে তারা কোনো কাজ পাচ্ছেন না বলেই এই ধরনের গুজব রটানো হচ্ছে।’ 

আইনজীবীর পক্ষ থেকে অভিনেত্রী এও জানান, নানার বিরুদ্ধে এখনও পর্যন্ত ১৫ জন সাক্ষীর বয়ান রেকর্ড করেছে পুলিশ। তবে ওই সময় যারা প্রত্যক্ষদর্শী ছিলেন, তারা এখনও কোনো বয়ান দেননি। তনুশ্রীর দাবি, ‘অভিযুক্তরা যেহেতু খুবই প্রভাবশালী, তাই কোনো সাক্ষীই সাহস করে সামনে আসতে পারছেন না।’

তনুশ্রীর আওয়াজ তোলার মধ্য দিয়েই বলিউডে #মিটু আন্দোলন চালু হয়েছিল। এরপর নানা ঘটনা সামনে আনেন আরও অনেক অভিনেত্রী। তাতে উঠে আসে অভিনেতা অলোক নাথ, পরিচালক সুভাষ ঘাই, সাজিদ খান, সংগীত পরিচালক অনু মালিক, গায়ক অভিজিৎ ভট্টাচার্য ও কৈলাশ খেরসহ অনেকের নাম। সেই #মিটু আন্দোলনের বাতাস এখনও বইসে ইন্ডাস্ট্রিতে।